আগামী বছরের মার্চে আসছে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক

0
122

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিভিন্ন বয়সী চরিত্রে সিনেমার পর্দায় কারা হাজির হতে যাচ্ছেন, এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। শুধু তাই নয়, শেখ হাসিনা , শেখ রেহানাসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের চরিত্রে কারা অভিনয় করবেন, তা জানার আগ্রহ সবার। বাংলাদেশ-ভারত অভিনয়শিল্পী বাছাই কার্যক্রমও হয়েছে। ছবির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল বলেছেন আগামী ৩ সপ্তাহের মধ্যে অভিনয়শিল্পী চূড়ান্ত হয়ে যাবে।

 

শ্যাম বেনেগাল জানান , এটি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বায়োপিক তৈরি হচ্ছে।

ছবিতে কি বঙ্গবন্ধুর জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কোন অধ্যায়ে তুলে ধরা হবে নাকি সমগ্র জীবনটা দেখতে পাবেন দর্শকরা? এমন প্রশ্নের জবাবে শ্যাম বেনেগাল বলেন, তাঁর সমগ্র জীবনী নিয়ে ছবিটি নির্মাণ করা হবে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আমি বায়োপিক নির্মাণ করতে যাচ্ছি।

 

এদিকে ছবির বাংলাদেশ অংশ থেকে কাস্টিং ডিরেক্টর বাহাউদ্দিন খেলুন জানান, সামনের এপ্রিলে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী ভিত্তিক ছবির শুটিং। ছবির প্রাথমিক নাম রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক বঙ্গবন্ধুতে তাঁর জীবনের চারটি অধ্যায় তুলে ধরা হবে। এই চার অধ্যায় এ বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বাংলাদেশ এবং ভারতের মুম্বাই ও কলকাতা থেকে অনেকে অডিশন দিয়েছেন। একইসঙ্গে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের চরিত্র এ কারা উপযুক্ত, তাদেরও অডিশন নেয়া হয়েছে। তবে এখনো কাউকে চূড়ান্ত করার খবর পাওয়া যায়নি।

 

৬ থেকে ১০ জানুয়ারি ঢাকার বাংলাদেশ টেলিভিশন মিলনায়তনে টানা পাঁচদিন বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক এর জন্য অডিশন চলে। প্রথম দুই দিন ছবির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল নিজে উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু চরিত্রটি বাংলাদেশ থেকে কেউ করবেন কি না, এমন প্রশ্নে জানানো হয়েছে, এটি এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। অডিশনের পর যাদের সেরা মনে হবে, তাদের মধ্য থেকে বিভিন্ন বয়সের বঙ্গবন্ধু চরিত্র চূড়ান্ত করা হবে। তারা বাংলাদেশের হতে পারেন ভারতের কেউও হতে পারেন। এই ছবিতে শতাধিক চরিত্র থাকবে। প্রতিটি চরিত্রের জন্য একাধিক ব্যক্তির অডিশন নেয়া হচ্ছে।

 

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে জীবনীভিত্তিক এই ছবির কাস্টিং ডিরেক্টর হিসেবে বাংলাদেশ থেকে আছেন বাহাউদ্দিন খেলন এবং ভারত থেকে শ্যাম বেনেগাল। ছবির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একজন বলেন, বাংলাদেশের শিল্পীদের অনেকেই অডিশন দিয়েছেন।

 

প্রাথমিকভাবে চলচ্চিত্রটির নাম রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু।

বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক দেখে মানুষ যেন বলতে পারে, ৫৫ বছরের দীর্ঘ ইতিহাসের পরতে পরতে থাকা খোকা থেকে শেখ মুজিব, শেখ মুজিব থেকে শেখ সাহেব , শেখ সাহেব থেকে বঙ্গবন্ধু , সর্বোপরি বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতা হয়ে ওঠার সবটুকু চিত্রনাট্যে থাকলে যে একটি সফল বায়োপিক হবে তাতে সন্দেহ নেই। চিত্রনাট্যকার অতুল তিউয়ারি ও পরিচালক শ্যাম বেনেগাল এর প্রতি শুভকামনা থাকলো।