প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বাজিমাত

0
198

মঞ্চে, আর র‍্যাম্পে আর নানা অনুষ্ঠানে হাজির হওয়ার দিন শেষ। আবারও বড় পর্দায় ফিরছেন হলি-বলি তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস। ক্যারিয়ারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রের জন্য নির্বাচিত হয়ে এবারে রীতিমতো বাজিমাত করে দিয়েছেন তিনি।

 

এতদিন কেবল সম্ভাবনার কথা শোনা গেছে। মঙ্গলবার জানা গেল নিশ্চিত সংবাদ। মা আনন্দ শিলার চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। আমাজান স্টুডিওর এ ছবি পরিচালনা করবেন হলিউডের পরিচালক ব্যারি লেভিনসন। ছবির নাম ‘শিলা’। শিলা চরিত্রে অভিনয় ছাড়াও ছবির অন্যতম প্রযোজক হিসেবে থাকছেন প্রিয়াঙ্কা। চিত্রনাট্য লিখছেন নিক ইয়ারবোরোহ।

 

মা আনন্দ শীলা আধ্যাত্মিক গুরু রজনীশ, যিনি ওশো নামে পরিচিত, তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী ছিলেন। তাঁর জীবনের ওপর ভিত্তি করেই লেখা হচ্ছে ছবি চিত্রনাট্য। নেটফ্লিক্সের তথ্যচিত্র ‘ওয়াইল্ড ওয়াইল্ড কান্ট্রি’র মাধ্যমে প্রথম পর্দায় উঠে আসে মা আনন্দ শিলার কাহিনী। ১৯৮১থেকে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত তিনি ওশোর ব্যক্তিগত সহকারি হিসেবে কাজ করেন আনন্দ শিলা। যুক্তরাষ্ট্রে রজনীশপুর আশ্রমের দায়িত্বেও ছিলেন তিনি। একসময় শিলার নেতৃত্বে ওশোর অনুসারীরা সালাদ বার ও রেস্তোরাঁগুলোতে বিষ মেশানোর ঘটনায় জড়িয়ে পড়েন। অসুস্থ হয়ে পড়ে বহু মানুষ। ১৯৮৪সালে ওরেগান প্রদেশে বায়োটেরর হামলার ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হন শিলা। এটি মার্কিন ইতিহাসের অন্যতম বড় আক্রমণ ছিল। এই অপরাধে তিনি কারাবন্দি হন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে অগ্নিসংযোগ, গুপ্তচরবৃত্তি ও ফোন ট্যাপ করার অভিযোগও ওঠে। তবে জেল থেকে বের হওয়ার পর শিলাই ফাঁস করে দেন রজনীশের নানা কীর্তির কথা।

 

এর আগেই এলেন ডিজেনারেস এর টক শোতে গিয়ে ‘ওয়াইল্ড ওয়াইল্ড কান্ট্রি’ এর ওপর ভিত্তি করে সিনেমা বানানোর কথা বলেছিলেন। প্রিয়াঙ্কা বলেছিলেন, ‘আমি ব্যারি লেভিনসন এর সঙ্গে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র করব ভাবছি। সেখানে আমরা শিলাকে ভারতীয় গুরু ওশোর ডানহাত হিসেবে উপস্থাপন করব। এ চরিত্রটি নিয়ে আমি রোমাঞ্চিত’।

 

গত বছর ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবিতে শেষ দেখা গিয়েছিল প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। ‘দ্য হোয়াইট টাইগার’ নামের একটি ছবিতে কাজ করার কথা রয়েছে প্রিয়াঙ্কার। অরবিন্দ আদিগারের বুকারজয়ী উপন্যাস অবলম্বনে ছবির চিত্রনাট্য লেখা হচ্ছে। এছাড়া ‘মেট্রিক্স রিবুট’ ছবিতে কাজের ব্যাপারে এখনো কথাবার্তা চলছে।